বৃহস্পতিবার , ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০
  1. অন্যান্য
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. ইসলাম
  5. খেলাধুলা
  6. গণমাধ্যম
  7. জাতীয়
  8. তথ্যপ্রযুক্তি
  9. বিনোদন
  10. মতামত
  11. রাজনীতি
  12. লক্ষ্মীপুর
  13. লাইফ স্টাইল
  14. শিক্ষাঙ্গন
  15. সংগঠন সংবাদ

লক্ষ্মীপুরে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

প্রতিবেদক
ডেস্ক এডিটর
সেপ্টেম্বর ২১, ২০২৩ ২:৪৬ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে ন্যাশনাল লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানীর অফিসে বীমার টাকা জমা দিতে আসা মরিয়ম বেগম (৩০) নামের এক গৃহবধূও রহস্যজনক লাশ উদ্ধার করছে থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় বাইপাস সড়কের রামগঞ্জ টাওয়ারের নীচতলা লিফটের রুমের পিছন থেকে এই লাশ উদ্ধার করা হয়। মরিয়ম বেগম নোয়াগাঁও ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামের শ্রমিক মনির হোসেনের স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী।

মৃত্যু হওয়া মরিয়মের স্বামী মনির হোসেন জানান, সকালে ন্যাশনাল লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানীর মাঠকর্মী লিটন সরকার মোবাইল করে তার স্ত্রীকে বীমার টাকা জমা দিতে আসতে বলে। পরে দুপুর ১২টার সময় তার স্ত্রী ছোট সন্তান মিরাজ(৪)কে নিয়ে রামগঞ্জ টাওয়ারের ৪র্থ তলায় বীমা কোম্পানির অফিসে আসে। বেলা সাড়ে তিনটায় অফিস থেকে আবু নাসের নামের একজন মাঠকর্মী মোবাইল করে তার স্ত্রীকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না ও সন্তানটি কান্নাকাটি করছে এ খবর দেয়। পরে তিনি ঘটনাস্থলে এসে মার্কেটের ম্যানেজারকে শিশু সন্তান মিরাজের দেখানো অনুযায়ী নীচতলা লিফটের রুমে মরিয়মের লাশ দেখতে পায়। মনির হোসেন আরো জানান, বীমা কোম্পানীর মাঠকর্মী লিটন সরকার প্রায় তার স্ত্রীকে মোবাইল করে বিভিন্ন কথা বলতো।

মৃত মরিয়মের সন্তান মিরাজ হোসেন (৪) টাওয়ারের পরিত্যক্ত ৫ম তলার লিফটের পাশে একটি সুড়ঙ্গ দেখিয়ে বলে, স্যার আমার মাকে এখান দিয়ে পেলে দিয়েছে। এখন আমি আমার মাকে খুঁজে পাই না।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, টাওয়ারের ৪র্থ তলায় ন্যাশনাল লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানী অফিস। ৫ম তলায় ছাদ আছে কিন্তু পরিত্যাক্ত। লিফটের পাশে নির্জন ও অন্ধকার একটি সুড়ঙ্গ রয়েছে, যা নীচতলা পর্যন্ত।

বীমা কোম্পানীর মাঠকর্মী আবু নাসের বলেন, তার সহকর্মী লিটন সরকার সাড়ে ১২টার দিকে গ্রাহক মরিয়মের টাকা জমা দেয়। পরে বাচ্ছাটি রেখে গ্রাহক চলে যায়। কিছুক্ষন পর লিটনও চলে যায়। পরে লিটন ৩টার সময় আবার ফিরে আসে। বাচ্ছটি হাটা চলা করছে । কিন্তু অনেকক্ষন পর বাচ্ছাটি কান্নাকাটি করছে দেখে আমি মোবাইল করে মরিয়মের স্বামীকে জানাই। তার স্বামী আসলে জানতে পারি নীচতলায় ওই গ্রাহকের লাশ পাওয়া গিয়েছে।

রামগঞ্জ টাওয়ারের সিকিউরিটি গার্ড জাকির হোসেন জানান, ঘটনা শুনার পর আমরা সবাই খোজাখুজির পর মরিয়ম বেগমের লাশ লিপটের পেছনে খালি জায়গা পড়ে থাকতে দেখি। পরে বিষয়টি আমি মার্কেটের ম্যানেজারকে অবিহিত করি।

এ বিষয়ে লিটন সরকার মোবাইলে মরিয়ম মারা যাওয়ার বিষয়টি সে কিছুই জানেন না বলে জানান।

রামগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) জানান, লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়না তদন্তের জন্য লক্ষ্মীপুর জেলা মর্গে প্রেরনের প্রস্তুতি চলছে। পরবর্তিতে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সর্বশেষ - রাজনীতি

আপনার জন্য নির্বাচিত

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের বিভাগীয় আন্তঃকলেজ খেলাধুলা ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

লক্ষ্মীপুর জেলা জাতীয় পার্টির কমিটি  সভাপতি মাহমুদ, সম্পাদক আপলু

বছরের শেষ দিনে বিশ্বে সবচেয়ে দূষিত ঢাকার বাতাস

কোস্ট গার্ডের জন্য পাঁচটি অত্যাধুনিক জাহাজ কমিশন করেছেন প্রধানমন্ত্রী

আরও ৬ কোটি ডিম আমদানির অনুমতি

লক্ষ্মীপুরে হত্যা মামলায় পরকিয়া প্রেমিকসহ গৃহবধূর যাবজ্জীবন

সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসা: নবজাতকের পর মারা গেলেন মা

রবীন্দ্র -নজরুল জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে লক্ষ্মীপুরে সাহিত্য সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা

উদ্বোধনের অপেক্ষায় শাহজালাল বিমানবন্দরের ৩য় টার্মিনাল

শিশুকে লাথি মেরে হত্যার দায়ে সৎ মায়ের ১০ বছরের কারাদণ্ড