১০ টাকা কেজির চাল জব্দ, যুবলীগ নেতার কর্মচারীর কারাদণ্ড

বরিশালের হিজলা উপজেলায় ১০ টাকা কেজির চাল অবৈধভাবে মজুদের অপরাধে এক ডিলারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কর্মচারীকে তিন মাসের কারাদণ্ড এবং নগদ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আমীনুল ইসলাম ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে এই দণ্ডাদেশ দেন।

জানা গেছে, হিজলা উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বিপ্লব খন্দকার ওই এলাকায় প্রধানমন্ত্রীর খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির (ওএমএস) ডিলার। আর চাল মজুদ রাখার অপরাধে দণ্ডিত ইউনুস সরদার ডিলার বিপ্লব খন্দকারের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কর্মচারী।

ডিলার বিপ্লব ১০ টাকা মূল্যের ওই চাল কালোবাজারে বিক্রির উদ্দেশে তার কর্মচারীর ঘরে মজুদ রেখেছিলেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

এ বিষয়ে ইউএনও আমিনুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইউনুস সরদারের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ১০ টাকা মূল্যের মজুত করা ২০ বস্তা (৫৩০ কেজি) চাল উদ্ধার করা হয়। পরে জিজ্ঞাসাবাদের ইউনুস সরদার স্বীকার করেন, তিনি ১০ টাকা মূল্যে দরিদ্রদের জন্য বরাদ্দ ওই চাল কিনে নিয়েছেন।

ইউএনও আরও জানান, জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সরকারি চাল আত্মসাতের অপরাধে ইউনুস সরদারকে ওই দণ্ডাদেশ ও জরিমানা করে পুলিশের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। এ সময় উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমান ও পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এই জাতীয় আরো খবর

আপনার মতামত জানাতে পারেন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.