বাজেট অধিবেশনে অংশ নিতে হ্যান্ডরাব পেলেন এমপিরা

লক্ষ্মীপুর সময় ডেস্কঃ

২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট অধিবেশন শুরুর বাকি আর মাত্র ক’দিন। আসছে ১০ জুন থেকে শুরু হতে যাওয়া আগামী বছরের বাজেট অনুমোদনে, এবারের অধিবেশনটি কোভিড-১৯ এর আতঙ্কে কিছুটা সাবধানতা অবলম্বন করে অনুষ্ঠিত হবার কথা বলে আসছে সংসদ সচিবালয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে করোনার সংক্রমণ থেকে সংসদ সদস্যদের (এমপি) সুরক্ষার উদ্যোগ নিয়েছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়।

বুধবার (৩ জুন) রাজধানীর ধানমন্ডিতে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের (বিসিএসআইআর) অধীনে থাকা রেফারেন্স ল্যাবরেটরি- ডিআরআইসিএম এর নিজস্ব প্রক্রিয়ায় উৎপাদিত ‘হ্যান্ডরাব’ সংসদ সদস্যদের জন্য হস্তান্তর করা হয়। বেলা ১১টার কিছু পরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান এসব হ্যান্ডরাব জাতীয় সংসদের সরকার দলীয় হুইপ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপনের হাতে তুলে দেয়া হয়।

হ্যান্ডরাব উৎপাদনের উদ্যোগ নেয়া এ গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি জানায়, বৈশ্বিক মহামারি করোনার প্রকোপ থেকে নিজেদের রক্ষা করতে জীবাণুনাশক দিয়ে বেশি বেশি হাত ধোয়ার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে। এ অবস্থায় বাজারে অপ্রতুল হয়ে পড়ায়, হু’র ফর্মুলা অনুসরণ করে নিজেরাই গবেষণাগারে ‘বি-ক্লিন’ নামের এই হ্যান্ডরাব (জীবাণুনাশক তরল) প্রস্তুতের উদ্যোগ নেয়।

এরই অংশ হিসেবে সংসদ সদস্যদের সুরক্ষায় উপহার হিসেবে এসব হ্যান্ডরাব দেয়া হলো বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে।

গণমানুষের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় নেয়া এই উদ্যোগের আওতায় প্রাথমিক পর্যায়ে ঢাকা মহানগরীর ছয়টি হাসপাতাল – বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ও শিশু হাসপাতালে দায়িত্বরত ডাক্তার, আগত রোগী ও জনসাধারণের হাত জীবাণুমুক্ত করতে প্রতিদিন প্রয়োজনীয় পরিমাণ স্যানিটাইজার সরবরাহ করা হয়।

এছাড়া ডিআরআইসিএম প্রস্তুতকৃত বি ক্লিন নামে হ্যান্ডরাব, স্যানিটাইজার ও ডিজইনফেকটেন্ট মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, অর্থ বিভাগ, ধর্ম মন্ত্রণালয়, ভূমি মন্ত্রণালয়, নির্বাচন কমিশনসহ সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংস্থা, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, নৌ-বাহিনী, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনাধীন বিভিন্ন সংস্থা, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ নির্মাণ প্রকল্প, বাংলাদেশ পুলিশ ও বিভিন্ন ব্যক্তি পর্যায়ে সরবরাহ করা হয়েছে এবং হচ্ছে। সূত্রঃ সময় সংবাদ।

এই জাতীয় আরো খবর

আপনার মতামত জানাতে পারেন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.