নগদ অর্থ সহায়তা থেকে বাদ পড়ল আট লাখ নম্বর

লক্ষ্মীপুর সময় ডেস্কঃ

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় চলছে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটি। এ ছুটির কারণে কর্মহীন হয়ে পড়েছে অনেক মানুষ। কম আয়ের এসব মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রী ঈদ উপহার হিসেবে আড়াই হাজার টাকা করে বরাদ্দ দিয়েছেন। এ টাকা বিতরণের তালিকা তৈরিতে বিভিন্ন জায়গায় অনিয়মের খবর পাওয়া গেছে। তালিকায় একই মোবাইল নম্বর একাধিকবার দেয়ায় ৮ লাখ নম্বর বাতিল করা হয়েছে।

এ বিষয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেন, আট লাখ পরিবারের নামের তালিকায় একই মোবাইল নম্বর একাধিকবার ব্যবহার করা হয়েছে। অনেক গরীব মানুষের বিকাশ নম্বর না থাকায় একই নম্বর বহু মানুষ ব্যবহার করেছে। তাই আট লাখের বেশি মানুষের নাম তালিকা থেকে বাদ দেয়া হয়েছে।

তালিকা সংশোধন করে বাদ পড়াদের অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানো হবে বলেও জানান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী।

করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত ৫০ লাখ দরিদ্র পরিবারকে মোবাইল ব্যাংকিং পরিষেবার মাধ্যমে সরাসরি নগদ অর্থ প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রতিটি পরিবারকে এককালীন আড়াই হাজার করে ১ হাজার ২৫০ কোটি টাকা নগদ সহায়তা বিতরণ করা হচ্ছে।

বিকাশ, রকেট, নগদ ও শিওর ক্যাশ এর মতো মোবাইল সেবার মাধ্যমে এ টাকা বিতরণ করা হবে। প্রতি পরিবারে ধরা হয়েছে চারজন সদস্য; সে হিসাবে এ নগদ সহায়তায় উপকারভোগী হবে ২ কোটি মানুষ। প্রতিদিন ১০ লাখ মানুষ নগদ সহায়তা পাবে এবং পুরো তহবিল ১৪ থেকে ১৮ মের মধ্যে বিতরণ করা হবে।

জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, ইউপি চেয়ারম্যান, সদস্য, শিক্ষক, সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তির সমন্বয়ে গঠিত কমিটি এ সহায়তাপ্রাপ্তদের তালিকা তৈরি করেছেন। ভাতা পাওয়ার তালিকায় আছেন রিকশাচালক, ভ্যানচালক, দিনমজুর, নির্মাণশ্রমিক, কৃষিশ্রমিক, দোকানের কর্মচারী, ব্যক্তি উদ্যোগে পরিচালিত বিভিন্ন ব্যবসায় কর্মরত শ্রমিক, পোল্ট্রি খামারের শ্রমিক, বাস-ট্রাকের পরিবহন শ্রমিক, হকারসহ নিম্ন আয়ের নানা পেশার মানুষ। কিন্তু এ তালিকা তৈরিতে বিভিন্ন স্থানে নয়-ছয়ের অভিযোগ ওঠায় অনিয়মের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

এই জাতীয় আরো খবর

আপনার মতামত জানাতে পারেন।

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.